Breaking News

তাহলে কি যুদ্ধ শুরু! এখুনি জেনে নিন কি হচ্ছে পাক আধিকৃত কাশ্মিরে

! এ রকমই ইঙ্গিত কিন্ত মিলছে শুরু করেছে। দলে দলে লোক পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীর ছেড়ে পালাতে শুরু করেছে। তাদের আশঙ্কা যেকোনো সময় যুদ্ধ বাধতে পারে দুই দেশের মধ্যে। কারণ যেভাবে সীমান্তের এপার এবং ওপারে সেনা জমায়েত করছে দুই দেশ তাতে এই আশঙ্কায় না সত্যি হয়।
প্রসঙ্গত সংবিধানের 370 ধারা বিলোপ এরপর কাশ্মীর নিয়ে কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে পাকিস্তান। কালকে ঘোষণা করেছে দ্বিপাক্ষিক কূটনৈতিক ও ব্যবসায়ীক সমস্ত সম্পর্ক বন্ধ করার কথা। এই পরিস্থিতিতে ভারতীয় দূত কে দেশে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইমরানের সরকার। নিজেদের ওপর চাপ সৃষ্টি হয়েছে তা কাটা তাই এরকম পদক্ষেপ বলে মনে করা হচ্ছে।
কাশ্মীর নিয়ে কয়েকটি মুষ্টিমেয় দেশ ছাড়া কেউ পাকিস্তানের পাশে দাঁড়ায়নি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বলেই দিয়েছে কাশ্মীর ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়।
একদিকে ইমরান খান যুদ্ধের আশঙ্কা করে জরুরি ভিত্তিতে সেনা টহল বাড়িয়েছে। অন্যদিকে ভারত ও প্রচুর সেনা জমায়েত করেছে কাশ্মীরের সীমান্ত এলাকায়। যতদিন না উত্তেজনা প্রশমিত হচ্ছে ততদিন ভারত-পাক দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য এবং কূটনৈতিক সম্পর্ক বন্ধ থাকবে বলেই জানাচ্ছে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তারা খুব শীঘ্রই এই ইস্যু নিয়ে আন্তর্জাতিক স্তরে দ্বারস্থ হবেন বলে জানিয়েছেন। এখন দেখার পাকিস্তানের এই ফাঁকা আওয়াজে কি করে আন্তর্জাতিক শিবির।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *