Breaking News

শাপে বর যেন ! করোনার প্রকোপের মধ্যেই আন্তর্জাতিক ব্যাবসাগুলি দেশে নিয়ে আসার চেষ্টা চালাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার। #bengali.howindiathinks

 সোমবার করোনার মোকাবেলা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে সব রাজ‍্যের মুখ‍্যমন্ত্রীদের ভিডিও কনফারেন্সে বৈঠকে ডাকেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।সেই আলোচনা পর্বেই তিনি মুখ‍্যমন্ত্রীদের জানান যে চীন ছেড়ে আসা কম্পানিগুলো কে স্বাগত জানানোর জন্য রাজ‍্যগুলো যেন তৈরী থাকে।
চীনেই প্রথম করোনার প্রকোপ দেখা দেয়। আর এরপর থেকেই পৃথিবীর বহুদেশ চীনের প্রতি রুষ্ট হয়ে ওঠে একদিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট যেমন চীনের উপোর কড়া তদন্ত করার এবং ক্ষতিপূরণ দাবি জানান অপরদিকে দক্ষিন কোরিয়া জাপানের মত দেশগুলো চীনের সাথে সমস্ত ব‍্যাবসায়িক সম্পর্ক না রাখার কথাও চিন্তা করছে। বরং দক্ষিণ কোরিয়া এবং জাপান ভারতের মাটিতেই তাঁরা তাঁদের ব‍্যাবসা শুরু করতছ চাইছেন,এমনই সোমবার ভিডিও কনফারেন্সে মুখ‍্যমন্ত্রীদের জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী এ ও জানান যে চীন ছেড়ে যেসব কম্পানি চলে যাওয়ার কথা ভাবছে তাদের ব‍্যাবসার অন‍্যতম জায়গা হতে পারে ভারত। কারন ভারতে প্রয়োজনীয় কর্মী এবং পরিকাঠামো দুইই আছে। তিনি এ ও জানান,”আপনারা জানেন যে, অনেক শিল্প সংস্থা করোনাভাইরাস সঙ্কটের পরে চিন ছেড়ে অন্য স্থানে যাওয়ার কথা ভাবছে। এই সময়ে যা‌তে ভারতে বিনিয়োগ আসে তা ভেবে কেন্দ্র ও রাজ্যগুলিকে এক হয়ে কাজ করতে হবে।”
শুধু প্রধানমন্ত্রীই নন,এর আগে নীতিন গড়কড়িও এই বিষয়ে আশার আলো দেখিয়ে মিডিয়া কে জানিয়েছেন যে চীনের এই ঘটনার পর অনেক বিদেশী কম্পানীই চীনে বিনিয়োগ করতে রাজি হবে না। আর তাদের বিনিয়োগের অন‍্যতম স্থান হতে পারে ভারত। তাই প্রধানমন্ত্রী এবং মুখ‍্যমন্ত্রীদের একজোট হয়ে পরিকাঠামোকে আরো শক্তিশালী করে তুলতে হবে।এটা ভারতবর্ষের জন‍্য শাপে বর হওয়ার মত সুযোগ।তাই এই সুযোগকে কোন ভাবেই হাতছাড়া করা যাবে না।
অর্থনীতি র ক্ষেত্রে কতটা প্রভাব পড়তে চলেছে এই লকডাউনের তা নিয়ে তিনি সেদিন আরো জানান যে এই লকডাউনের ফলে ছোট,বড়, মাঝারি শীল্পে যথেষ্টই প্রভাব পড়তে চলেছে। কিন্তু পরবর্তীতে চীন ছেড়ে আসা কম্পানিগুলোর জন‍্যও প্রস্তুত থাকতে হবে‌ বর্তমানে চীনের অর্থনেতিক অবস্থা আশঙ্কাজনক এবং এর গ্রোথ রেট ১.২ শতাংশ কমে যাবে বলে জানায় আইএমএফ। এই অর্থনৈতিক ধাক্কা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সহ বেশ কিছু উন্নত দেশেগুলোতেও পড়তে চলেছে। এমন অবস্থায় চীন ছেড়ে আসা কম্পানিগুলো ভারতে বিনিয়োগ করলে তা ভারতের জন‍্য খুবই ভালো খবর বলে জানাচ্ছেন বিশিষ্ট মহল । এছাড়া প্রধানমন্ত্রী শুরু থেকে দেশের বিকাশের জন্য যে সব স্বপ্ন দেখেছিলেন মেকিং ইন্ডিয়া প্রোজেক্ট এনেছিলেন তা ও সফলতার দিকে এগোতে চলেছে বলে মনে করছেন অনেকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *