Breaking News

ভারতের রাজনীতির আকাশে আরো এক নক্ষত্র পতন।প্রয়াত প্রাক্তন বিদেশ মন্ত্রি সুষমা স্বরাজ

ভারতের রাজনীতির আকাশে আরো এক নক্ষত্র পতন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় দিল্লি এইমসে প্রাক্তন বিদেশ মন্ত্রী ও বিজেপি নেত্রী সুষমা স্বরাজ কে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসা হয়। বেশ কিছুদিন ধরেই তিনি অসুস্থ ছিলেন। এবারের লোকসভা নির্বাচনে তাই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেননি তিনি। হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।
মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল 67 বছর। জানা গেছে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তাঁর মৃত্যু হয়। খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বিজেপির কার্য নির্বাহী সভাপতি জেপি নাড্ডা, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রাজনাথ সিং, প্রকাশ জাভেড়কর, নীতির গড়করি সহ বিজেপি নেতারা হাসপাতালে ছুটে আসেন।

সুষমা স্বরাজ বিদেশ মন্ত্রী হিসেবে যথেষ্ট প্রশংসিত হয়েছিলেন। বিশ্বের যেকোন প্রান্তে যখনই কোন ভারতীয় অসুবিধায় পড়ে ছিলেন তখনই তিনি তার পাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন। ভারতের বিদেশমন্ত্রীর যে একনিষ্ঠ দায়িত্ব পালন করেছিলেন তিনি তা ভারতবাসী শ্রদ্ধার সহিত সারা জীবন মনে রাখবে। অসুস্থতার কারণে অব্যাহতি চেয়ে ছিলেন তিনি লোকসভা নির্বাচনে নিজেই জানাতে চাননি। গোটা দেশ আজ শোকস্তব্ধ। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি টুইট বার্তায় গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। টুইট বার্তায় তিনি বলেন সুষমা স্বরাজ একজন উচ্চমানের প্রশাসক ছিলেন, যে মন্ত্রকের দায়িত্বই ওনাকে দেওয়া হোক না কেন তিনি তার দায়িত্বের সঙ্গে পালন করেছেন। কোন দেশের সঙ্গে সম্পর্কের উন্নতিতে অনেক দায়িত্বশীল ছিল সুষমা।
প্রসঙ্গত মন্ত্রী থাকাকালীন টুইট করে বিদেশে পরিজনের সমস্যা কথা জানালেও কাল বিলম্ব না করে ঝাঁপিয়ে পড়তে দেখা গেছে ওনাকে।
2016 সালে তার কিডনি ট্রান্সপ্লান্ট হয়। তারপর থেকে তিন সুস্থই ছিলেন। মন্ত্রী হিসেবে নিজের কাজ চালিয়ে যাচ্ছিলেন। এদিন মৃত্যুর কয়েক ঘণ্টা আগে 370 ধারা প্রত্যাহার নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা বার্তা ও দেন তিনি।

তার মৃত্যুতে ভারতীয় রাজনীতির এক বর্ণোজ্জল অধ্যায়ের পরিসমাপ্তি ঘটলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *