Breaking News

বাম-কংগ্রেস সমঝোতা, খুলতে পারে নতুন সমীকরণ

২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনে সংখ্যালঘু ভোট ব্যাংকের দিকে তাকিয়ে সবকটি রাজনৈতিক দল। বিজেপি সংখ্যালঘু ভোট বাদ দিয়েই এবারের বিধানসভা ভোটের লড়াইয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছে। এরই মধ্যে সিদ্দিকীর সাথে জোট বাঁধতে চলেছে বাম-কংগ্রেস। আসন সমঝোতা চূড়ান্ত এবং তা সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশেই হয়েছে।সাংবাদিক বৈঠক করে জানাল বাম-কংগ্রেস নেতৃত্ব। তবে কে কত আসনে লড়াই করবে তা এখনই স্পষ্ট করা হল না।

মঙ্গলবার সাংবাদিক বৈঠকে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী বলেন, ‘শুধু নির্বাচনের আসন সমঝোতাই নয়, রাজ্য রাজনীতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। বলেন, পশ্চিমবঙ্গে স্বৈরাচারী ও সাম্প্রদায়িক শক্তি চায়নি বাম-কংগ্রেস জোট সফল হোক। কিন্তু সব অপপ্রচার ব্যর্থ করে আসন সমঝোতা চূড়ান্ত করে ফেলেছি আমরা।’

যদিও আসন নিয়ে এখনই মুখ খুলতে নারাজ বামফ্রন্ট নেতৃত্ব। কে কটা আসন পেল তা এখন গোপনই থাক, এমনটাই দাবি অধির চৌধুরীর। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, ‘কারণ আলোচনা চলাকালীন কতকগুলি রাজনৈতিক সমীকরণ তৈরি হয়েছে বাংলায়। আব্বাস সিদ্দিকির আইএসএফের মতো দল জোটে জায়গা নিতে চাইছে। তাই আজই ঘোষণা করে দিলে তাদের কাছে ভুল বার্তা যাবে যে, আমাদের জন্য কিছু রাখা হল না। তাই আজ সংখ্যা ঘোষণা সমীচীন নয়।’

‘কত আসন ছাড়া হবে তা এখনই ঘোষণা নয়। তৃণমূল-বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের প্রথম পদক্ষেপ সফল। বাংলায় দ্বিমুখী নয়, ত্রিমুখী লড়াই হতে চলেছে। রাজ্যে ক্রমশ বাম-কংগ্রেসের শক্তি বৃদ্ধি হচ্ছে। বাম-কংগ্রেসের উপর আক্রমণ নেমে আসছে। মইদুল ইসলামের মৃত্যু তারই প্রমাণ,’ সাংবাদিক বৈঠকে বললেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী।