Breaking News

ফাঁস হল রাজ্য বিজেপির অন্দরের অন্তরদ্বন্দ। ছিছিকার উচ্চ পর্যায়ে

ফাঁস হলো চাঞ্চল্য করো তথ্য বঙ্গীয় বিজেপি যুব মোর্চার সদস্য কৌশিক ঘোষের বিরুদ্ধে। তার ফেসবুক প্রোফাইল থেকে জানা যাচ্ছে তিনি বর্তমানে যুব মোর্চার সহ সভাপতি। তিনি দলীয় আর এক সদস্যা শিপ্রা বাইনের সাথে অবৈধ সম্পর্ক স্থাপন করেন । শিপ্রা বাইন বর্তমানে যুব মোর্চার কার্যকরী কমিটির সদস্যা।
শিপ্রা দেবীর স্বামী শ্রী সুরজিত বাইন নিজে দিলিপ ঘোষের কাছে অভিযোগ পত্র জমা করেন কৌশিক ঘোষের বিরুদ্ধে। তিনি বলেন যে কৌশিক ঘোষ তার স্ত্রীকে জানিয়েছেন যে কৌশিক ঘোষের সাথে সংগঠন সম্পাদক সুব্রত চ্যাটার্জী এবং আর এক অন্য সংগঠন সম্পাদক প্রতাপ ব্যানার্জীর সাথে শিপ্রা দেবীর পদোন্নতির ব্যাপারে কথা হয়েছে। এমনকি কৌশিক ঘোষের সাথে শিবরাজ চৌহানেরও কথা হয়েছে, আগামী জুন মাসে তিনি সহ সভাপতি থেকে সভাপতি হলে শিপ্রা দেবীকে তিনি উচ্চ পদ পাইয়ে দেবেন এবং এই বিষয়ে কোথাও কোন মুখ না খুলতে অনুরোধ করেন।

বর্তমানে শিপ্রা দেবীর স্বামী জানান যে তার স্ত্রী কৌশিক ঘোষের সাথেই আছেন এবং পরিবারে তিনি দুটি ছোট বাচ্চার (১০, ৮) সাথে অসহায় অবস্থায় আছেন। একটি চিঠির মাধ্যমে পুরো বিষয়টি দিলিপ ঘোষকে জানান এবং সাহায্য প্রার্থী হন। দিলিপ বাবু এখনো অবধি কোন মন্তব্য করেননি।

এদিকে কৌশিক ঘোষের বিরুদ্ধে আরো অভি্যোগ আনেন দেবলীনা শাস্ত্রী । শাস্ত্রী শিবসেনার বর্তমান সদস্য এবং প্রাক্তন বিজেপি মেম্বার । জানা যায় কৌশিক ঘোষ প্রাক্তন সদস্যা দেবলিনা শাস্ত্রী সাথে বিবাহের প্রতিশ্রুতি দিয়ে শারীরিক সম্পর্কে যুক্ত ছিলেন বহু বছর। তারপর তাকে বিবাহে অস্বীকার করেন। এই ব্যাপারে দেবলিনা দেবী বিজেপির রাজ্য সভাপতি, সম্পাদক এবং অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গকে জানিয়েছিন। তিনি লকেট চ্যাটার্জী এবং দিলীপ ঘোষকেও একটি বিশদ চিঠি লেখেন। যদিও এখনো তিনি তার কোন সদুত্তর দলের কাছ থেকে পাননি। সেই এক্সক্লুসিভ চিঠি একমাত্র আমাদের হাতে এসেছে।

এইদিকে এতসব গোষ্ঠী কোন্দলের মাঝে প্রশ্ন উঠছে তাহলে কি রাজ্য বিজেপিতে মহিলারা সুরক্ষিত নন ? এদিকে যখন দল সদ্য প্রাক্তন প্রেমিক যুগল শোভন বৈশাখীকেও দলে আনার চেস্টা করছেন তখন কি তারাও সুরক্ষিত থাকবেন ? নাকি অন্যদের মত তাদেরকেও নিগ্রহ সহ্য করতে হবে ? যদিও উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে এই নিয়ে কোন মন্তব্য করা হয়নি এবং বিষয়টি চেপে যাওয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *