Breaking News

নরেন্দ্র মোদী ও অমিত শাহের পরবর্তী লক্ষ্য কি পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীর? এক্ষুনি জেনে নিন

দল প্রতিষ্ঠা যখন হয় ঠিক সেই সময়ের জনসঙঘর প্রধান দাবি ছিল ক্ষমতায় এলেই প্রত্যাহার করা হবে 370 অনুচ্ছেদ। কিন্তু 2014 এ ক্ষমতায় এসে মোদি সরকার এরকম কোন পদক্ষেপ নেয়নি। এই দাবি পূরণ যে কার্যত অসম্ভব সেটা ঠারে ঠারে বোঝাচ্ছিলেন বিরোধীরা কারণ এই বিল আনতে গেলে যে ন্যূনতম সংখ্যা রাজ্যসভায় প্রয়োজন তা ছিল না এনডিএ জোটের। অন্যদিকে 2019 এ ক্ষমতায় এসেই প্রধানমন্ত্রী যেভাবে একের পর এক বিল পাস পাশ করতে শুরু করেছেন রোড রাজ্যসভায় সংখ্যা কম থাকা সত্ত্বেও তা এককথায় বিরোধীদের কোণঠাসা করা ছাড়া আর কিছুই নয়। এক ছন্নছাড়া অবস্থা বিরোধীদের।অবশেষে নরেন্দ্র মোদির 2.0 মন্ত্রিসভার ৩৭০ (৩) ও ৩৫ এ ধারা বাতিল করে কড়া বার্তা দেয়। ঠিক এখনই তাই একটি প্রশ্ন স্বাভাবিকভাবেই উঠে আসছে শাহ এর পরবর্তী পদক্ষেপ কী? তাহলে কি পরবর্তী লক্ষ্য কি পাক অধিকৃত কাশ্মীর? এমন বার্তাই কিন্তু দিলেন অমিত শাহ নিজে।
স্বরাষ্ট্র দফতরের প্রতিমন্ত্রী জিতেন্দ্র সিংহ ও বুঝিয়ে দিলেন এই কথায়। তার মানে এটা নয় যে কালকেই পাক অধিকৃত কাশ্মীর অভিযান শুরু হয়ে যাবে। অদূর ভবিষ্যতে যে হতেও পারে কারণ যেভাবে কাল লোকসভায় অমিত শাহ জি হুংকার ছাড়লেন POK কে নিয়ে তাতে এই ধারণা স্পষ্ট হয়। লোকসভায় তার বক্তৃতার সময় বাধা দেওয়ায় তিনি আরো উত্তেজিত হয়ে পড়ে বলেন, ” পাক অধিকৃত কাশ্মীরের জন্য আমি প্রাণ দিতে প্রস্তুত।”
প্রসঙ্গত উল্লেখযোগ্য পাক অধিকৃত কাশ্মীরের দিকে যে মোদী শাহ যে হাত বাড়াবে এই আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন মোদি সরকার এর প্রথম পর্বের দিল্লিতে নিযুক্ত পাক হাইকমিশনার আব্দুল বাসিত।

তাহলে কি এই আশঙ্কায় সত্যি?

আমাদের বিশ্লেষক দের মতামত জানতে হলে চোখ রাখুন আমাদের পেজে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *