Breaking News

স্বপ্নের উড়ান একেই বলে সম্ভবত। অদম্য ইচ্ছার জোরে আজ শহরের কোনে কোনে তার নাম রঘুবীর চাইওয়ালা

অ্যামাজনের ডেলিভারি বয় থেকে মাসে ১ লক্ষ টাকা আয়ের সফল ব্যবসায়ী হওয়া চাট্টিখানি কথা নয়! সেরকমই এক সফল স্টার্ট-আপের খবর জানাবো আজ আপনাদের। নিঃস্ব থেকে শুরু করে স্বপ্নের উড়ান কি করে করতে হয় সে বিষয়ে গোটা দেশকে স্বপ্ন দেখাচ্ছেন তিনি।

অ্যামাজনে ডেলিভারি বয়-এর চাকরি করতেন জয়পুরের যুবক রঘুবীর সিং চৌধুরি। খুবই গরিব ঘরের ছেলে। আর্থিক অনটনের জেরে উচ্চশিক্ষা ছেড়ে রোজগারের রাস্তায় নেমে পড়েন কম বয়সেই। ডেলিভারি বয় হিসেবে যোগ দেন অ্যামাজনে। সকাল ৯ টা থেকে রাত ৯টা অক্লান্ত পরিশ্রম জয়পুরের কাঠফাটা রোদে, মাসে ৯ হাজার টাকা মোটে বেতন। মোটরবাইক না থাকায় সাইকেলেই ডেলিভারি দিতেন রঘুবীর। পণ্য পৌছে দিতেন শহরের কোনায় কোনায়, সামান্য মাইনে আর অমানুষিক পরিশ্রমের ফল্রে খুব দ্রুতই শরীর ভাঙ্গতে থাকে। পারিবারিক অনটনের ফলে এমন অবস্থায় পৌঁছে যান যে খিদে পেলেও পয়সা না থাকায় চা খেয়েই চাঙ্গা হতেন। সাইকেলে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে রঘুবীর দেখেন, ভালো চায়ের দোকানও অনেক জায়গায় নেই। সারাদিন কাজের পর ভালো চা না পেটে পড়লে বড় ক্লান্ত লাগে। তখনই স্টার্ট-আপের ভাবনা আসে রঘুবীরের মাথায়।

বন্ধুদের বলেন আইডিয়ার কথা। চা ভেন্ডরদের সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করেন। শীঘ্রই ১০০ চা ভেন্ডরের সঙ্গে আলাপ জমিয়ে ফেলেন। রঘুবীর চা ডেলিভারি শুরু করেন। কঠোর পরিশ্রমের ফসল হিসেবে মাস চারেক পরেই কিনে ফেলেন একটি মোটরবাইক।

বর্তমানে জয়পুরে রঘুবীরের ৪টি চা ডেলিভারি সেন্টার রয়েছে। দিনে গড়ে ৫০০ থেকে ৭০০ অর্ডার পান। মাস গেলে আয় ১ লক্ষ টাকা। ৪টি মোটরবাইক কিনে ফেলেছেন। কয়েকটি ডেলিভারি বয় রেখেছেন। তাঁরাই ওই বাইক নিয়ে চা পৌঁছে দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *