Breaking News

১৮ বছর ধরে গাড়ি চালাচ্ছেন তিনি। আজ ওবধি হর্ন বাজাননি। স্যালুট এই মানুষটিকে

যানজট এবং হর্নের শব্দ থেকে মুক্ত রাস্তায় গাড়ি চালানো প্রতিটি নাগরিকের স্বপ্ন। প্রথমটি যখন স্বপ্ন থেকে সত্যি হওয়ার দিকে, তখন কলকাতার একজন চালক দ্বিতীয়টিকে প্রায় নিজের জীবনের মন্ত্র করে নিয়েছেন।

কলকাতার দীপক দাস গত ১৮ বছর ধরে হর্ন না বাজিয়েই গাড়ি চালাচ্ছেন। হ্যা, আপনি ঠিকই শুনছেন। এরকম একটি দৃষ্টান্ত স্থাপন করার জন্য দীপকবাবুকে ‘মানুষ সম্মান’ পুরস্কারে পুরস্কৃত করা হয়েছে। তাঁর গাড়িতে রাখা একটি প্ল্যাকার্ডে লেখা থাকে- ‘হর্ন একটি ধারণামাত্র। আমি আপনার হৃদয়ের প্রতি যত্নশীল।’

শব্দদূষণমুক্ত কলকাতার লক্ষ্যে দীপকবাবুর অবদানকে স্বীকৃতি জানানো হয়েছে মানবতাবিষয়ক মেলা ‘মানুষমেলা’-য়। হর্ন না বাজানোর নীতিতে বিশ্বাসী দীপকবাবুর বলেন যে “ক্রমাগত হর্ন বাজালেই রাস্তায় ট্র্যাফিকের সমস্যার সমাধান হয়ে যায়না।আমার মনে হয় যদি একজন চালক এই নো-হর্ণ নীতি অনুসরণ করে, সে ড্রাইভিং করার সময় আরও সতর্ক হয়ে উঠবে। চালকের যদি সময়, অবস্থান এবং গতির ব্যাপারে যথাযথ ধারণা থাকে তবে তাকে হর্ন ব্যবহার করতে হয় না” -এই তাঁর অভিমত।

তবলা পণ্ডিত তন্ময় বসু এবং গিটারবাদক কুনাল, যাঁরা দীপকবাবুকে নিজেদের চালক হিসাবে নিযুক্ত করেছিলেন, তাঁরা দীপকের ভূমিকার প্রশংসা করেছেন। দীপকবাবু বিশ্বাস করেন যে কলকাতা শীঘ্রই একটি ‘হর্নমুক্ত’ শহর হয়ে উঠবে। হিন্দুস্তান টাইমসের একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, তিনি বলেন,”এটি এমন কিছু নয় যা অর্জন করা যায় না বা অর্জন করা খুব কঠিন। দরকার শুধু প্রশাসনিক এবং রাজনৈতিক সদিচ্ছা।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *