Breaking News

তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা থেকে বাদ যেতেই বিজেপির ফোন আব্বাসদের কাছে, বিষ্ফোরক অভিযোগ তুলে দলত্যাগ

 

শুক্রবার প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই প্রার্থী তালিকা থেকে বর্তমান বিধায়কদের ২৮ জন বাদ পড়েছেন। এরপরই ২৪ ঘন্টার মধ্যে বদলে গেছে রাজ্যের চিত্র। বিধানসভার টিকিট না পেতেই সেই দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপর ক্ষোভ উগড়ে চোখের জল ফেলে দল ছাড়ার কথা ঘোষণা করেছেন অনেকেই।

এবং সূত্র মারফত খবর প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হওয়ার পর থেকেই বিজেপির থেকে ফোন আসতে শুরু করেছে এইসব বিধায়কদের কাছে। এমনকি আব্বাসের কাছেও ফোন গিয়েছে বলে খবর।

ফেসবুক লাইভে এসে দল ছাড়ার কথা বললেন নলহাটির বিদায়ী তৃণমূল বিধায়ক মঈনউদ্দিন শামস। গতকালও নিজের বিধানসভা এলাকায় বাংলা নিজের মেয়েকেই চায় পোস্টার নিয়ে প্রচার করছেন তিনি। অবাঙ্গালী নেতা দীনেশ বাজাজ। সোনালী গুহ টিভি ক্যামেরার সামনেই হাউহাউ করে কেঁদে ফেলেছেন।

অবশ্য বিজেপি সূত্রে খবর, তৃণমূলের যারা টিকিট পাননি তারা বিজেপিতে যোগদান করতে চাইলে অসুবিধা না থাকলেও টিকিট দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিতে পারবেননা। যারা এতদিন ধরে দলের হয়ে কাজ করেছেন তাদের নায্য দাবি রয়েছে।

তৃণমূলের যারা টিকিট পাননি তারা হলেন, পুর্নেন্দু বসু, অমিত মিত্র, বাচ্চু হাঁসদা, রত্না ঘোষ কর, রেজ্জাক মোল্লা, জটু লাহিড়ি, ব্রজ মোহন মুখোপাধ্যায়, রবীন ভট্টাচার্য্য, রবি রঞ্জন চট্টোপাধ্যায়, মালা সাহা, স্মিতা বক্সী, সোনালী গুহ, সমীর চক্রবর্তী, অমল আচার্য, অসিত মাঝি, জীবন মুখোপাধ্যায়, পরশ দত্ত, গৌরিশঙ্কর দত্ত, নার্গিশ বেগম, দেবশ্রী রায়, জেমস কুজুর, শম্পা দরিপা, দীপেন্দু বিশ্বাস, রফিকুর রহমান, হিতেন বর্মণ, আশিষ চক্রবর্তী, প্রদ্যুৎ ঘোষ এবং মইনুদ্দিন শামস।

এইদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন যারা বিধায়কের টিকিট পাননি তাদের বিধান পরিষদের সদস্য করা হবে‌। বাংলায় বিধানসভা রয়েছে বিধান পরিষদ নেই। তৃণমূল জিতলে বিধান পরিষদ হবে‌। তারপর সেখানে সদস্য নির্বাচন হবে। রাজনেতিক বিশেষজ্ঞদের মতে এটা ভুয়ো আশ্বাস ছাড়া আর কিছুই নয়।